খান বাহাদুর আব্দুল মাজিদ মুরারিচাঁদ কলেজ ইতিহাসের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র

সিলেটের দুর্ভাগ্য, মাত্র বছরাধিকাল মন্ত্রিত্ব থাকার পর ১৯২২ সালে মাত্র ৫০ বছর বয়েসে তিনি মৃত্যুবরন করেন।

জিয়াউদ্দিন আহমেদ

সিলেট মুরারিচাঁদ কলেজের ইতিহাসের এক মহান নায়ক সৈয়দ আব্দুল মাজিদ (কাপ্তান মিয়া) আজ ইতিহাসের পাতায় বিলুপ্ত। আমরা অনেকেই জানি রাজা গিরিশ চন্দ্র সিলেটের শিক্ষার জন্য নুতুন যুগের সৃষ্টি করেছিলেন। তিনি সিলেট এইডেড স্কুল , রাজা জি, সি হাই  স্কুল , সংষ্কৃত শিক্ষা টোল এবং ১৮৯২ সালে মুরারিচাঁদ   কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন।  প্রথম ২০ বছর বছর রাজা নিজের আর্থিক সহায়তায় সব  ব্যায় ভার গ্রহণ করেন। 

১৮৯৭ সালের বিরাট ভূমিকম্পের ফলে রাজার বাড়ি ঘর ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহ ধংস হয়ে যায়. তিনি ঋণ গ্রহণ করে তা পুনর্নির্মাণ করতে যেয়ে  ধিরে ধিরে  আর্থিক অনটনে  পতিত হন. ১৯০৮ সালে রাজা গিরিশ চন্দ্রের মৃত্যুর পর  কলেজে আর্থিক বিপাকে পড়ে  যায়।  ফলে বাধ্য হয়ে সরকারি সাহায্য নিতে হয় এবং কলেজ একটি এইডেড প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়। বাবু দুলাল চন্দ্র দেব এবং কাপ্তান মিয়ার উদ্যোগে কলেজটি নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পায়।  ১৯১২ সালে কলেজ পূর্ণাঙ্গ সরকারি কলেজে পরিনিত হয়।  

১৯১৬ সালে কলেজকে প্রথম গ্রেড ডিগ্রি কলেজে উন্নীত করতে সিলেটে এক জোরদার আন্দোলন শুরু হয়।  কাপ্তান মিয়া সেই আন্দোলনের ছিলেন পুরোধা । তিনি নিজের  ও ওপর আটজন গণ্য মান্য সিলেটবাসীর পক্ষ  থেকে ১৮০০০ টাকার গ্যারান্টার হন।  ফলে কলেজটি প্রথম শ্রেণীতে রূপান্তরিত হয়।  

১৯২১ সালে কাপ্তান মিয়া সিলেট সদর থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসাম আইন পরিষদের সভ্য নির্বাচিত হন। হিন্দু মুসলিম সকল সম্প্রদায়ের কাছে ছিল তার এমন জনপ্রিয়তা।  নুতুন ব্যবস্থাপনায় তিনি আসামের শিক্ষা মন্ত্রীর দায়িত্ব ভার পান এবং সিলেটের শিক্ষা বিস্তারের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন।  

সেই সময় মুরারিচাঁদ কলেজ  সিলেট শহরের ভিতর ছিল এবং প্রথম শ্রেণীর ডিগ্রি কলেজের উপযুক্ত পরিবেশ এবং দালান কোঠা সেখানে ছিলনা। কাপ্তান মিয়া তখন সিলেটে বিশ্ববিদ্যালয় করার স্বপ্ন দেখেছিলেন। আসাম ভ্যালির  পূর্বে সুরমা ভ্যালিতে বিশ্ববিদ্যালয় করতে হলে উপযুক্ত জমির এবং কিছু  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন।  

তাই তিনি শহর থেকেই তিন মাইল দূরে ১২০ একর জমি অধিগ্রহণ করে শিক্ষা মন্ত্রী হিসাবে বর্তমান মুরারিচাঁদ কলেজ প্রাঙ্গণের ভিত্তির  সূচনা করেন এবং ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করার জন্য আসামের তদানীন্তন গভর্নর স্যার উইলিয়াম মরিস কে আমন্ত্রণ জানান।  

১৯২৫ সালে থ্যাকারের  টিলায়  (বর্তমানে টিলাগড়) নতুন কলেজের উদ্ভোধন  করেন স্যার বিডসন বেল । 

তখন কাপ্তান মিয়া আর ইহজগতে নেই. স্যার বিডসন বেল  তার উদ্ভোধনী ভাষণে গভীর শ্রদ্ধা ভরে কলেজে স্থাপনে  কাপ্তান মিয়ার বিরাট  অবদানের কথা  স্মরণ করেন।  কাপ্তান মিয়া কলেজের নুতুন কোনো নাম বা নিজের নাম না দিয়ে এই নুতুন প্রাঙ্গনে কলেজটিকে মুরারিচাঁদ কলেজের নামই রাখেন। 

রাজা গিরিশ চন্দ্র যে বীজ বপন করেছিলেন তারই মতন আরেক শিক্ষানুরাগী কাপ্তান মিয়া সেটাকে মহিরুহুতে পরিনিত করেন। ক্ষমতার নির্লোভ ও সিলেটের মানুষের অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য তার এই অসামান্য উদাহরণে  ভাস্বর হয়ে থাঁকবে। 

কাপ্তান মিয়ার জন্ম হয়েছিল ১৮৭২ সালে সিলেটের কাজী ইলিয়াসে।  তার বাবা সৈয়দ আব্দুল জলিল এর পূর্ব পুরুষ ছিলেন হজরত শাহজালালের অন্যতম আউলিয়া সৈয়দ শাহ মোস্তফা বাগদাদী।  নিজে প্রাচীন পন্থী আলিম হওয়া সত্ত্বেও তিনি ছেলেকে ইংরেজি শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছিলেন। 

কাপ্তান মিয়া নবাব তালেব স্কুল থেকে পাশ করে পরে সিলেট জিলা স্কুল থেকে ১৮৮৭ সালে প্রবেশিকা ও কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ এবং সেইন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে ১৮৯২ বি , এ পাশ করেন। 
১৮৯৪ সালে তিনি বি , এল  পাশ করেন। তার কর্ম জীবন ছিল বৈচিত্রময়. .তিনি সুদীর্ঘ ১৫ বছর সিলেট লোকেল বোর্ডের সদস্য ছিলেন। ১৯০৬ থেকে ১৯০৯ পর্যন্ত তিনি সিলেট পৌর সভার ভাইস চেয়ারম্যান ও পরে তিন বছর চেয়ারম্যানের দায়িত্যভার পালন করেন।  

কৃষি খাতে উন্নতির জন্য তিনি কয়েকটি কৃষি খামার গড়ে তোলেন। চা শিল্পের উন্নতির জন্য তিনি তিনটি চা বাগান তৈরী করেন এবং চা শিল্পে স্বদেশীদের মধ্যে ছিলেন পথিকৃৎ।  চা শিল্প ছাড়াও তিনি একটি ভোজ্য তেলের কল ও প্ৰতিষ্ঠা করেন। আসাম প্রদেশে এটাই জাতীয় প্রথম ভারতীয় প্রচেষ্টা।  শিল্প স্থাপনেও শুধু নয় তিনি  সমাজ সেবা ও স্বদেশকর্মী হিসেবেও তিনি ছিলেন অগ্রদূত। 

১৯০৬ সালের মুসলিম লীগের জন্মের পূর্বে মুসলমানদের একমাত্র রাজনৈতিক সংঘঠন আঞ্জুমানে ইসলামিয়ার ১৯০২ সালে তিনি ছিলেন সিলেট  জিলার  সেক্রেটারী ও পরে সভাপতি নির্বাচিত হন. তিনি নিখিল ভারত মোহামেডান কনফারেন্সের সভ্য ছিলেন। 

ব্রিটিশ রাজ্ তার সমাজ সম্প্রসারণের  কাজে অতুলনীয় অবদানের জন্যে তাকে খান বাহাদুর উপাধি দিয়ে সন্মান প্রদান করে। বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ১৯১৯ সালে সিলেট আগমন করলে তাকে যে বিরাট সম্বর্ধনা দেয়া হয় সর্বসম্মতিক্রমে আব্দুল মাজিদ কাপ্তান মিয়া ছিলেন সেই অভ্যর্থনা কমিটির সভাপতি।  

সিলেটের দুর্ভাগ্য, মাত্র বছরাধিকাল মন্ত্রিত্ব থাকার পর ১৯২২ সালে মাত্র ৫০ বছর বয়েসে তিনি মৃত্যুবরন করেন। 

আমরা মুরারিচাঁদ কলেজে তার স্মৃতি কে সন্মান দেখাবার জন্য তার ইতিহাস কে সংরক্ষণ করার  আহবান জানাই।

ফিলাডেলফিয়া, যুক্তরাষ্ট্র
Join us
Join us
নাম

অপরাধ সংবাদ অর্থনীতি আইন-কানুন আন্তর্জাতিক ইসলাম এক্সক্লুসিভ কৃষি তথ্য ক্যাম্পাস খেলাধুলা গণমাধ্যম চাকরির খবর জাতীয় নগর-মহানগর পশু-পাখি পাঁচমিশালী প্রচ্ছদ প্রবাস ফিচার ফেসবুক কর্ণার বিজ্ঞান-প্রযুক্তি বিনোদন ভ্রমণ মুক্তমত রাজনীতি রাশিফল রেসিপি লাইফস্টাইল শিক্ষাঙ্গণ শীর্ষ সংবাদ সারাদেশ সাহিত্য
false
ltr
item
খান বাহাদুর আব্দুল মাজিদ মুরারিচাঁদ কলেজ ইতিহাসের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র
সিলেটের দুর্ভাগ্য, মাত্র বছরাধিকাল মন্ত্রিত্ব থাকার পর ১৯২২ সালে মাত্র ৫০ বছর বয়েসে তিনি মৃত্যুবরন করেন।
https://4.bp.blogspot.com/-QYt4I_kcfYU/WpCOU0V6L6I/AAAAAAAAQrU/YjpWc9VQIaI9cVZIN173r5TmIzSwv2_cQCLcBGAs/s320/mccollege.jpg
https://4.bp.blogspot.com/-QYt4I_kcfYU/WpCOU0V6L6I/AAAAAAAAQrU/YjpWc9VQIaI9cVZIN173r5TmIzSwv2_cQCLcBGAs/s72-c/mccollege.jpg
bdview24.com | Bangla News Portal - বাংলা নিউজ পেপার
https://www.bdview24.com/2014/02/mccollege.html
https://www.bdview24.com/
https://www.bdview24.com/
https://www.bdview24.com/2014/02/mccollege.html
true
6262954174861801074
UTF-8
Not found any posts সব দেখুনL বিস্তারিতঃ- Reply Cancel reply Delete By হোম পেইজ পোস্ট সব দেখুন একই রকম পোস্ট বিষয় আর্কাইভ শেয়ার সব খবর Not found any post match with your request ব্যাক টু হোম রবিবার সোমবার মঙ্গলবার বুধবার বৃহস্পতিবারর শুক্রবার শনিবার রবিঃ সোমঃ মঙ্গঃ বুধঃ বৃহঃ শুক্রঃ শনিঃ জানুয়ারি ফেব্রুয়ারি মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টেম্বর অক্টোবর নভেম্বর ডিসেম্বর জানুঃ ফেব্রুঃ মার্চ এপ্রিঃ মে জুন জুলাঃ আগস্ট সেপ্টেঃ অক্টোঃ নভেঃ ডিসেঃ এই মুহূর্তে ১ মিনিট আগে $$1$$ minutes ago 1 hour ago $$1$$ hours ago Yesterday $$1$$ days ago $$1$$ weeks ago more than 5 weeks ago Followers Follow THIS CONTENT IS PREMIUM Please share to unlock Copy All Code Select All Code All codes were copied to your clipboard Can not copy the codes / texts, please press [CTRL]+[C] (or CMD+C with Mac) to copy