আখ

আখের রসের যতো উপকারিতা

আখ আমাদের সকলের পরিচিত এবং এটি চিবিয়ে খেতে আমরা অনেকে পছন্দ করে থাকি। অনেকেই একে ইক্ষু বা কুসার নামে ডেকে থাকেন। আখ ঘাস জাতীয় পরিবারের একটি গাছ । এর উৎপত্তি স্থল গায়েনাতে হলেও পরবর্তিতে এর চাষ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। আমাদের দেশেও প্রচুর আখ চাষ হয়ে থাকে। এটি আমাদের দেশের অন্যতম একটি অর্থকরী ফসল। দেখতে অনেক সাধারণ হলেও এটি কিন্তু অনেক পুষ্টিগুণে ভরপুর এবং এর উপকারীতার কথা বলে শেষ করা যাবে না। আসুন তবে জেনে নিই আখের পুষ্টিগুণ এবং এর উপকারীতা সম্পর্কে।

পুষ্টিগুণঃ
অত্যান্ত রসালো আখ দেখতে সাধারন হলেও এটি কিন্তু অনেক পুষ্টি সমৃদ্ধ । এতে আছে ক্যালসিয়াম, ক্রোমিয়াম, কোবাল্ট, ফসফরাস, কপার, আয়রন, ম্যাংগানিজ, পটাসিয়াম, প্রোটিন, ভিটামিন এ, ভিটামিন বি১, বি২, বি৩, বি৫, বি৬, ভিটামিন সি, জিংক, সুক্রোজ, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, গ্লুকোজ, হাইডক্সি অ্যাসিড, ড্রায়াটারি ফাইবার ছাড়াও আরও অনেক উপকারী সব উপাদান। যা বিভিন্ন ভাবে আমাদের শরীরের অনেক উপকার করে থাকে।

উপকারিতাঃ
১। আখ আমাদের লিভারের সমস্যা দূর করে। কারণ আখে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বিভিন্ন ইনফেকশনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে আমাদের ইউমিন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে তোলে। একই সাথে এটি আমাদের লিভার ইনফেকশন কমায় এবং বিলিরুবিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। আখ আমাদের শরীরে গ্লুকোজের মাত্রা ঠিক রেখে রোগ মুক্ত থাকতে সাহায্য করে।

২। আখে আছে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম। এই পটাসিয়াম আমাদের শরীরে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এজেন্ট হিসেবে কাজ করে। ফলে আমাদের হজম প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয় এবং হজমের সমস্যা দূর হয়। এছাড়াও এতে প্রাকৃতিক চিনি থকায় এবং অন্যান্য চিনির তুলনায় এতে গ্লাইসেমিন ইনডেক্স অনেক কম থাকায় থাকায় এটি ডায়বেটিস রোগির জন্য বেশ উপকারী।

৩। ফেব্রাইল ডিজঅর্ডার বা উচ্চমাত্রায় জ্বর এর সমস্যা সমাধানে আখ অনেক উপকারী। একই সাথে এটি আমাদের প্রোটিনের ক্ষতি পূরণে সাহায্য করে। আখে ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, আয়রন ও ম্যাংগানিজ থাকায় এটি আমাদের পানি শূন্যতা এবং ইলেক্ট্রোলাইটের সমস্যা দূর করে। এছাড়াও আখ আমাদের ডিহাইড্রেশন কমায় এবং আমাদের খুব তাড়াতাড়ি এনার্জি দিয়ে থাকে।

৪। দাঁত দিয়ে আখ ছিলে খেলে আমাদের দাঁত শক্ত হয় । নিঃশ্বাসের দূর্গন্ধ দূর হয়। এছাড়াও এতে থাকা ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস আমাদের দাঁতের এনামেল ভালো রাখে এবং দাঁতের ক্ষয় রোধ করে। এতে উচ্চমাত্রায় বিভিন্ন খনিজ উপাদান থাকায় এটি আমাদের মুখের ভেতরের বিভিন্ন সমস্যা এবং দাঁতের সমস্যা দূর করে।

৫। আখে প্রচুর পরিমাণে হাইড্রক্সি অ্যাসিড থাকায় এটি আমাদের ত্বকের জন্য ভীষণ উপকারী। এটি আমাদের মুখের ব্রণ এবং বলিরেখা কমায়। আখ খেলে আমাদের ত্বক সজীব এবং সতেজ থাকে। কারণ এটি ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখে। একই সাথে আখ আমাদের ত্বক উজ্জ্বল করে থাকে এবং অকালে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে।

৬। আখ খেলে আমাদের রক্তে মিশে থাকা খারাপ কোলেস্টরলের পরিমাণ কমে যায়। ফলে আমাদের হার্ট ভালো থাকে এবং বিভিন্ন হার্ট ডিজিসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে। এছাড়াও আখে অনেক ফাইবার থাকায় এটি আমাদের অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে।