ব্রাইন শ্রিম্প

ব্রাইন শ্রিম্প এগ

যারা মাছের বাচ্চা ফোটান তাদের কাছে ব্রাইন শ্রিম্প এগ এর খুব কদর । অ্যাকুরিয়ামের মাছের বাচ্চাদের জন্য এর থেকে ভালো এবং সেফ খাবার খুব কমই আছে । অ্যাকুরিয়ামের মাছের বাচ্চা তোলা যতটা সহজ , ওই ছোট্ট ছোট্ট বাচ্চাদের খাবার খাওয়ানো ততটাই কঠিন । অ্যাকুরিয়ামের মাছের বাচ্চা আপনি অনেক পরিমানেই করতে পারবেন কিন্তু ওই বাচ্চাদের বাঁচিয়ে রাখার জন্য যে খাবার দেওয়া যায় তার মধ্যে ব্রাইন স্রিম্প এগ বাদে অন্যান্য খাবার যোগার করা কিন্তু খুবই কঠিন কাজ । অ্যাকুরিয়ামের মাছের বাচ্চাদের জন্য যে সমস্ত খাবার গুলি প্রয়োজন হয় তার মধ্যে ব্রাইন স্রিম্প এগ অন্যতম । এই ব্রাইন স্রিম্প হাতের কাছে থাকা মানে মাছের বাচ্চাদের খাবার আপনার কাছে মজুত ।

এখন দেখে নেওয়া যাক ব্রাইন স্রিম্প এগ জিনিস টা কি ? এই খাবার কি ভাবে মাছ এর বাচ্চাদের খাওয়াতে হয় । ব্রাইন স্রিম্প এগ হল এক ধরনের চিংড়ি মাছের ডিম । এই ডিম মাছের বাচ্চাদের সরাসরি খাওয়ানো যায় না । এই চিংড়ি মাছের একটি বিশেষ পদ্ধতির দ্বারা ফোটাতে হয় তারপর ঐ সদ্য ফোটা চিংড়ি মাছের বাচ্চা গুলি মাছের বাচ্চা দের খাওয়াতে হয় । এই চিংড়ি মাছের ডিম প্যাকিং করা কৌটাতে কিনতে পাওয়া যায় । বিভিন্ন নামি দামি কোম্পানির ব্রাইন শ্রিম্প এগ কিনতে পাওয়া যায় । ঐ সমস্ত ব্রাইন স্রীম্প এর কৌটার গায়ে ডিম ফোটাবার পদ্ধতি লেখা থাকে । খুব সহজেই আপনি ঐ ডিম ফুটিয়ে নিতে পারবেন ।

সাধারনত এই ডিম ফোটাতে হলে একটু লম্বা ধরনের যায়গায় ফোটানো সুবিধাজনক । সাধারনত ছোট ১ চামচ ডিম ফোটাবার জন্য ২ থেকে ৩ লিটার জল ধরে এমন একটি পাত্রে লিটার প্রতি ২ থেকে ৩ চা চামচ খাবার লবন মিশিয়ে ঐ জলে চিংড়ী মাছের ডিম দিলে ১৮ থেকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ঐ ডিম ফুটে যায় । ডিম ফোটাবার জন্য একটি এয়ার স্টোন এয়ার পাম্প দিয়ে ঐ জলের মধ্যে সারাক্ষণ চালিয়ে রাখতে হবে । ঐ ডিম ফোটাবার পাত্রটি একটু আলো অন্ধকার যায়গায় রাখবেন । চিংড়ী মাছের ডিম ফুটে গেলে ৪ থেকে ৫ মিনিট এয়ার পাম্প বন্ধ করে দিলে দেখবেন , চিংড়ী মাছের ডিমের খোলা গুলি জলের উপরে ভেসে যাবে । আপনি যদি চিংড়ি মাছের বাচ্চাগুলি ঢেলে বের করতে চান তাহলে বাচ্চার সঙ্গে ডিমের খোলা গুলিও বের হয়ে আসবে তাই সব থেকে সুবিধাজনক হোল , সাইফন পদ্ধতিতে বাচ্চা গুলি বাইরে বের করা । একটি সরু পাইপ দিয়ে সাইফন করে চিংড়ী মাছের বাচ্চা যতটা প্রয়োজন ততটা বের করে নিতে পারবেন । এই সাইফন করার জন্য আপনি অ্যাকুরিয়াম এয়ার পাম্প এর জন্য যে পাইপ ব্যবহার করা হয় , সেই পাইপ ব্যাবহার করা বেশ সুবিধা জনক । কারন এই সর পাইপ দিয়ে জল বেশ আস্তে বের হবে । জলের সঙ্গে বেরিয়ে আসা চিংড়ী মাছের বাচ্চা গুলি একটি পাতলা কাপড় দিয়ে ছেঁকে নেবেন । যদি সব বাচ্চা গুলি আপনার মাছের বাচ্চাদের খাওয়াতে প্রয়োজন না হয় তাহলে ছাঁকার পরে জলটি আবার ঐ ডিম ফোটানোর পাত্রে দিয়ে দেবেন । নাহলে পরবর্তি কালে আবার যখন সাইফন করে চিংড়ী মাছের বাচ্চা বের করার প্রয়োজন হবে তখন পাত্রে জল কম থাকার কারনে অসুবিধা হতে পারে ।

মনে রাখবেন: চিংড়ি মাছের বাচ্চা ফোটার পর থেকে প্রতিদিন সাইজে বড় হতে থাকবে , কিন্তু সেই অনুপাতে মাছের বাচ্চা বড় হয় না । বিশেষ করে ছোট জাতের মাছ যেমন নিওন টেট্রা , ব্লাড ফিন টেট্রা ইত্যাদি । প্রয়োজন অনুসারে প্রতি দিন বা ১ দিন অন্তর চিংড়ি মাছের ডিম ফোটাবেন । এই চিংড়ি মাছের ডিম আপনার মাছের বাচ্চাদের খাওয়ানোর জন্য সব থেকে নিরাপদ ।