অভিশংসন তদন্তের দুই সাক্ষীকে বরখাস্ত করলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রতিশোধ নিলেন। ক্ষমতার অপব্যবহারসহ দুটি অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে যে অভিশংসন তদন্ত শুরু হয়েছিল, সম্প্রতি উচ্চকক্ষ সিনেট তা খারিজ করে ট্রাম্পকে খালাস করে দেয়। এবার সেই অভিশংসন তদন্তের দুই সাক্ষীকে বরখাস্ত করলেন ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার ট্রাম্প তার ইউরোপীয় ইউনিয়নে মার্কিন রাষ্ট্রদূত গর্ডন সোন্ডাল্যান্ডকে বহিষ্কার করেন। তার কয়েক ঘণ্টা আগে লে. কর্নেল আলেকজান্ডার ভিন্ডম্যানকেও হোয়াইট হাউস ছাড়তে বলা হয়। ভিন্ডম্যান মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের (এনএসসি) ইউক্রেন বিশেষজ্ঞ। দুজনই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সাক্ষী দিয়েছিলেন কংগ্রেসে।

যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমের খবর, মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের আইনজীবী ও ভিন্ডম্যানের যমজ ভাই ইয়েভগেনি, যিনিও একজন লে. কর্নেল, তাকেও একইদিনে বহিষ্কার করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেট থেকে রেহাই পাওয়ার দুদিন পর ট্রাম্প এসব ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বহিষ্কার করলেন।

রাজনৈতিক বিবেবচনায় সোন্ডাল্যান্ড ট্রাম্প প্রশাসনে যোগ দিয়েছিলেন। ট্রাম্পের তহবিলে ১ মিলিয়ন ডলার দান করার পরপরই তাকে নিয়োগ দেয়া হয়। তিনি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট তাকে (হোয়াইট হাউস থেকে) প্রত্যাহারের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন, এটা খুব শিগগিরই কার্যকর হবে।

সোন্ডাল্যান্ড তার অব্যাহতির খবর দেয়ার কয়েক ঘন্টা পর ভিন্ডম্যানকে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের কার্যালয় ছাড়ার কথা জানিয়ে কিছুক্ষণ পর হোয়াইট হাউস থেকে তাকে বের করে দেয়া হয়। মার্কিন এই সামরিক কর্মকর্তা ইরাক যুদ্ধে আহত হয়েছিলেন। তার আইনজীবী বলেছেন, সাক্ষী দেয়ার প্রতিফল হিসেবে ট্রাম্পের এমন পদক্ষেপ।