সুসংবাদ, অবশেষে বৃষ্টির দেখা!

বৃষ্টি যেন হারিয়ে গেছে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর পর বৃষ্টির দেখা নেই। তাপমাত্রা বাড়ছে। হাঁফ ধরা গরমে অতিষ্ঠ দেশবাসী। শুধু রাজধানী ঢাকা নয়, সারা দেশেই একই অবস্থা।

এদিকে সর্বশেষ পাওয়া সংবাদ অনুযায়ী, কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বৃষ্টি হয়েছে। এতে জনজীবনে স্বস্তি নেমে আসে।

সোমবার (১৩ মে) বিকেলে ভৈরবের আকাশে কালো মেঘ জমে। কিছুক্ষণ পর চারদিক অন্ধকার হয়ে গিয়ে শুরু হয় দমকা হাওয়া। এর পরই শুরু হয় স্বস্তির বৃষ্টি।

এ সময় বৃষ্টির পানিতে ভিজে আনন্দ উপভোগ করেন অনেকে। প্রায় ৪০ মিনিট ধরে বৃষ্টি চলে। টানা দাবদাহের পর হঠাৎ বৃষ্টিকে আশীর্বাদ হিসেবে দেখছেন এলাকাবাসী।

এর আগে আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ আফতাবউদ্দিন সোমবার (১৩ মে) দুপুর সাড়ে ১২টায় জানিয়ে ছিলেন, আজ বিকেল থেকে পরবর্তী ৭/৮ ঘণ্টার মধ্য যে কোনো সময়ে রাজধানীতে বৃষ্টি নামার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ইফতারের আগেই বৃষ্টি শুরু হতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। দক্ষিণ/দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

গতকাল রোববার (১২ মে) ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ (১৩ মে) দুপুর ১২টায় ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।