বিশ্বের প্রথম নগদ টাকা বিহীন দেশ হতে যাচ্ছে সুইডেন

সুইডেনে প্রতি পাঁচটির মধ্যে চারটি কেনাকাটায় লেনদেনই ব্যাংকের কার্ডের মাধ্যমে বা অনলাইনে হয়। আর এ সংখ্যাটি দ্রুত বাড়ছে, ফলে পাশাপাশি কমছে ডাকাতির ঘটনা। কারণ নগদ টাকা মানুষের কাছে প্রায় থাকেই না। আর এ প্রবণতার ফলে শিগগিরই নগদ অর্থের ব্যবহার পুরোপুরি বাদ দেওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে সুইডেনে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার।

সুইডেনে প্রতিজন প্রতি বছর গড়ে প্রায় ২৬০টি ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতি ব্যবহার করে লেনদেন করে। ইলেক্ট্রনিক্স পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করলে নগদ অর্থ বহন করার কোনো প্রয়োজন হয় না। ফলে এটিএম মেশিন থেকে টাকা উঠিয়ে নয় বরং সরাসরি কার্ড ব্যবহার করেই কেনাকাটা সারছেন ক্রেতারা। আর এখন খুচরো বিক্রেতারাও কার্ড গ্রহণ করছেন।

ইউরোপের অন্য দেশগুলোতে নগদ অর্থের প্রয়োজনীয়তা সুইডেনের মতো কমেনি। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে পিছিয়ে আছে ইতালি। দেশটিতে চারভাগের তিন ভাগ কেনাকাটা অনলাইনে হয়।

অনলাইনে লেনদেনের ফলে নগদ অর্থ বহন না করায় সাধারণ ডাকাতি ও ছিনতাই এখন আগের তুলনায় অনেক কমে গেছে দেশটিতে। ২০১২ সালে দেশটিতে মাত্র পাঁচটি ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে, যা ৩০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন।

সুইডেনের ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডায়নামিক্সের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর নিকলাস আর্ভিডসন জানান, সুইডিশদের এ প্রবণতা অব্যাহত থাকলে ২০৩০ সালে নগদ অর্থ ব্যবহার পুরোপুরি বাদ হয়ে যাবে সুইডেন থেকে।