জীবজগৎ

রাজধানীতে কুকুরের গায়ে লাল ও গোলাপি রঙ কেন?

হঠাৎ করেই রাজধানীর অলিতে-গলিতে রঙিন কুকুর দেখা যাচ্ছে। প্রতিটি কুকুরের গায়ে লাল ও গোলাপি রঙ লাগানো। অনেকেই ঢাকা শহরজুড়ে কুকুরগুলোকে এমন রাঙিয়ে দেয়ার বিষয়ে কৌতূহলী হয়েছেন। তারা জানতে চেয়েছেন, এমনটা কেন করা হল? কুকুরগুলোকে কে বা কারা এমন সাজিয়েছে? আসলে বিষয়টি কোনো মজার ছলে করা হয়নি, জলাতঙ্ক নির্মূলে এসব কুকুরকে …

আরও পড়ুনঃ

শঙ্খিনী যে এলাকায় থাকে সেখানে অন্য সাপ থাকে না

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে শঙ্খিনী সাপ উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন। সোমবার রাতে শ্রীমঙ্গল শহরের পূর্বাশা আবাসিক এলাকা থেকে দীর্ঘকার এ সাপ উদ্ধার করেন বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব। সাপটি সাড়ে ৬ ফুট লম্বা বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বলেন, …

আরও পড়ুনঃ

১৪০০ বছর আগেই পবিত্র কুরআন যা বলেছে, সেটাকেই আমেরিকার বিজ্ঞানীরা বলছেন অনন্য আবিষ্কার

সম্প্রতি আমেরিকার উটাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকগণ একটি নতুন প্রজাতির মৌমাছির সন্ধান পেয়েছে বলে দাবি করছে। তারা এই প্রজাতির মৌমাছিকে অস্বাভাবিক প্রাণী বলে অবিহিত করেছে। এই প্রজাতির মৌমাছি পাহাড়ে নিজেদের বাসা নির্মাণ করে। তারা তাদের এধরণের আবিষ্কারকে অনন্য বলে দাবী করেছে। অথচ ১৪০০ বছর পূর্বে এ ধরণের মৌমাছি সম্পর্কে পবিত্র কুরআনে আলোচনা …

আরও পড়ুনঃ

তোতা-ময়না যেভাবে মানুষের কথা রপ্ত করে

মানুষের কথা হুবহু বলতে পাড়ায় ময়না ও তোতা পাখি বেশ জনপ্রিয়। পাখি প্রেমী মানুষের এই দুটি পাখি নিজেদের সংগ্রহে রাখার জন্য অনেক কিছুই করে থাকেন। এই পাখি দুটিকে খুবই সহজে পোষ মানিয়ে মানুষের কথাগুলো শেখানো যায়। তবে অন্য পাখিগুলো কিন্তু মানুষের কথাগুলো কখনো শিখে রপ্ত করতে পারে না। এছাড়া বলতেও …

আরও পড়ুনঃ

এই মোরগ বিক্রি হল এক লক্ষ ১০ হাজার টাকায়!

এক মোরগের দাম এক লক্ষ ১০ হাজার টাকা। তাও আবার পোষা মোরগ। অবাক হবেন না, ঠিকই পড়ছেন। একটি মোরগের দাম এক লক্ষ ১০ হাজার টাকা। ভারতের কেরালা রাজ্যের কোট্টায়ামের একটি চার্চে সম্প্রতি নিলামে এই অবিশ্বাস্য দাম ওঠে ওই মোরগটির। কোট্টায়ামে পোনপল্লি সেন্ট জর্জ জ্যাকোবিট সিরিয়ান অর্থোডক্স চার্চে প্রতিবছর একটি মোরগ …

আরও পড়ুনঃ

যে কারণে এই নিরীহ প্রাণীটির দাম কালোবাজারে কোটি টাকা!

বন্যপ্রাণীর চোরাচালান পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম কালোবাজার। আর সেই বাজারে সব থেকে বেশি চাহিদা যে স্তন্যপায়ী প্রাণীর, তার নাম হল প্যাঙ্গোলিন। কিন্তু কেন এমন চাহিদা? আসলে প্যাঙ্গোলিনের শরীরময় যে আঁশ, তার চাহিদা বিপুল। সেখান থেকে প্রাচীন ঔষধি তৈরি হয়। আর তা বিক্রি করা হয় চড়া দামে। এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশ মিলিয়ে …

আরও পড়ুনঃ

বিশ্বের ব্যয়বহুল দশ পোষা প্রাণী

পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষের ভেতরেই প্রকৃতির প্রতি একটা দুর্বলতা কাজ করে। আর এই দুর্বলতা প্রায়শই শখ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। যেমন ধরুন, বাগান করার শখ, নৈসর্গিক সৌন্দর্যের টানে দূরদূরান্তে ভ্রমণের শখ অথবা জীবজন্তু পোষার শখ। এই শেষ শখটার কবলে কবলিত লোকের সংখ্যা নিতান্ত কম নয়। হয়তো আপনিও সেইসব পশুপাখি প্রেমিকদেরই একজন, যারা …

আরও পড়ুনঃ

গাছের পাতায় ডায়াবেটিস নির্মূল!

গাছের পাতায় নির্মূল হচ্ছে ডায়াবেটিস! আর সেটা মাত্র ১৫ দিনে। এমন দাবিই করেছেন নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার মৃত তাইজুদ্দিনের ছেলে ডায়াবেটিস রোগী মোজাম্মেল হক সর্দার(৪৮)। গাছের পাতায় ডায়াবেটিস নির্মূলের খবরে তোলপাড় শুরু হয়েছে জেলাজুড়ে। শত শত মানুষ ছুটে যাচ্ছে মোজাম্মেল হকের বাড়িতে। একের পর এক ডায়াবেটিস রোগী সুস্থ হওয়ায় এ খবর …

আরও পড়ুনঃ

ঘরে টিকটিকির যন্ত্রণা থেকে মুক্তির উপায়

লম্বা লেজ বিশিষ্ট এই প্রাণীটি আমাদের ঘরের অন্যান্য পোকামাকড় খেয়ে উপকার করলেও আমরা কেউই এই প্রাণীটিকে আমাদের ঘরে রাখতে রাজি নই। টিকটিকির (lizard) ঘরময় রাজত্ব কেবল ভয়ানক ব্যাপারই নয় বরং খাদ্যদ্রব্যতে এই বিষাক্ত প্রাণীটি পড়লে আমাদের স্বাস্থ্য হানিসহ চরম অসুস্থতার কারণও ঘটতে পারে। বাজারে এই টিকটিকি মারার বিভিন্ন উপকরণ ও …

আরও পড়ুনঃ

ইউক্যালিপটাস গাছের বিপদ ও করণীয়

একটি উদ্বেগজনক খবর। সেটি হচ্ছে ‘ঠাকুরগাঁওয়ে বাড়ছে ইউক্যালিপটাস গাছ, নেমে যাচ্ছে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর।’ জেলার কৃষকেরা না জেনে-বুঝেই ক্ষেতের আলে, ফাঁকাজমিতে, রাস্তার ধারে বিদেশী এ গাছের চারা রোপণ করছেন ব্যাপকভাবে। অথচ এ গাছটি পরিবেশের জন্য ভীষণ ক্ষতিকর। এটি পানিশোষক ও ভূগর্ভের পানির স্তর নীচে নামিয়ে দেয়। ইউক্যালিপটাস গাছ এর চারপাশে …

আরও পড়ুনঃ