জীবজগৎ

বিশ্বে বিলুপ্তির পথে জোনাকি পোকা

জোনাকি

কীটনাশকের ব্যবহার, আবাসস্থল হারানো এবং কৃত্রিম আলোর কারণে প্রায় ২ হাজার প্রজাতির জোনাকি যে কোনো সময় বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। জীবনচক্র পূরণের জন্য সুনির্দিষ্ট আবহাওয়া প্রয়োজন জোনাকিদের। জার্নাল বায়োসায়েন্সে এ তথ্য জানিয়েছেন টাফটস বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞানের প্রফেসর সারা লিউস। মালেয়শিয়ান জোনাকি হচ্ছে সমন্বিত আলোক বিচ্ছুরনের জন্য বিখ্যাত। তাদের প্রজননের জন্য ম্যানগ্রোভ …

আরও পড়ুনঃ

ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে যেসব উদ্ভিদ

যেসব উদ্ভিদ ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে

শহরে গাড়ি-কলকারখানার সংখ্যা যেমনি বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে বাতাসে থাকা বিভিন্ন ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থের পরিমাণ, ঘটছে পরিবেশ দূষণ। তবে এ বিষাক্ত রাসায়নিক যে শুধু রাস্তাঘাটেই রয়েছে, তা কিন্তু নয়। এমন অনেক ভয়াবহ রাসায়নিক পদার্থ আমাদের বাসা-বাড়িতেও রয়েছে, যার সম্পর্কে অনেকের ধারণাও নেই। তবে এই নিয়ে ভয়ের কিছু নেই। একটু সবুজই এনে …

আরও পড়ুনঃ

শীতে এই ফুলগাছগুলো লাগাতে পারেন

জিনিয়া

শহুরে জীবনে একটুখানি প্রশান্তির পরশ পেতে অল্পকিছু হলেও ফুলগাছ লাগান অনেকেই। ছাদ, বারান্দা কিংবা ঘরের কোন দখল করে এই গাছগুলো। তাতে ঘরের সৌন্দর্য তো বাড়েই, সঙ্গে বাড়ে সতেজভাবও। এই শীতে কিছু ফুলগাছ লাগাতে পারেন আপনার শখের বাগানে। চলুন জেনে নেয়া যাক- গাঁদা শীতকালীন ফুলের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফুল হল গাঁদা …

আরও পড়ুনঃ

ঘর সাজুক গাছ ও বাহারি টবে

গাছ ও বাহারি টব

ইট পাথরে গড়া এই যান্ত্রিক শহরে সবাই চাই একটু সবুজের ছোঁয়া। শিল্প বিপ্লবের এই যান্ত্রিক যুগে একটু সবুজ ছায়া যেন শান্তির পরশ। তাই চার দেয়ালের মধ্যেই যদি রাখা যায় জীবন্ত উদ্ভিদ, তাতে গৃহসজ্জায় নান্দনিকতার পাশাপাশি প্রশান্ত এক পরিবেশও তৈরি হয়। ঘর সাজাতে আমরা কতো কিছুই না করি। কতো ধরণের শো …

আরও পড়ুনঃ

বাড়ির ছাদ আর বারান্দা হয়ে উঠুক একটুখানি স্বর্গ

বাসার বারান্দা

যুগ যুগ ধরেই শহুরে জীবনে অবসর সময় কাটানোর সবচেয়ে জনপ্রিয় স্থান হলো বাসার বারান্দা আর ছাদ। নিজের বাসায় নিজস্ব আবহে একটুখানি একান্ত সময় পাবার জন্য এর চেয়ে উপযুক্ত স্থান হয় না! আর এই জায়গাটিকে যদি সাজানো যায় নিজের মনের মতো করে, তাহলে মনের স্ফূর্তি বেড়ে যায় বহুগুণ! তবে বারান্দা আর …

আরও পড়ুনঃ

রাজধানীতে কুকুরের গায়ে লাল ও গোলাপি রঙ কেন?

হঠাৎ করেই রাজধানীর অলিতে-গলিতে রঙিন কুকুর দেখা যাচ্ছে। প্রতিটি কুকুরের গায়ে লাল ও গোলাপি রঙ লাগানো। অনেকেই ঢাকা শহরজুড়ে কুকুরগুলোকে এমন রাঙিয়ে দেয়ার বিষয়ে কৌতূহলী হয়েছেন। তারা জানতে চেয়েছেন, এমনটা কেন করা হল? কুকুরগুলোকে কে বা কারা এমন সাজিয়েছে? আসলে বিষয়টি কোনো মজার ছলে করা হয়নি, জলাতঙ্ক নির্মূলে এসব কুকুরকে …

আরও পড়ুনঃ

শঙ্খিনী যে এলাকায় থাকে সেখানে অন্য সাপ থাকে না

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে শঙ্খিনী সাপ উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন। সোমবার রাতে শ্রীমঙ্গল শহরের পূর্বাশা আবাসিক এলাকা থেকে দীর্ঘকার এ সাপ উদ্ধার করেন বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব। সাপটি সাড়ে ৬ ফুট লম্বা বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বলেন, …

আরও পড়ুনঃ

১৪০০ বছর আগেই পবিত্র কুরআন যা বলেছে, সেটাকেই আমেরিকার বিজ্ঞানীরা বলছেন অনন্য আবিষ্কার

সম্প্রতি আমেরিকার উটাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকগণ একটি নতুন প্রজাতির মৌমাছির সন্ধান পেয়েছে বলে দাবি করছে। তারা এই প্রজাতির মৌমাছিকে অস্বাভাবিক প্রাণী বলে অবিহিত করেছে। এই প্রজাতির মৌমাছি পাহাড়ে নিজেদের বাসা নির্মাণ করে। তারা তাদের এধরণের আবিষ্কারকে অনন্য বলে দাবী করেছে। অথচ ১৪০০ বছর পূর্বে এ ধরণের মৌমাছি সম্পর্কে পবিত্র কুরআনে আলোচনা …

আরও পড়ুনঃ

তোতা-ময়না যেভাবে মানুষের কথা রপ্ত করে

মানুষের কথা হুবহু বলতে পাড়ায় ময়না ও তোতা পাখি বেশ জনপ্রিয়। পাখি প্রেমী মানুষের এই দুটি পাখি নিজেদের সংগ্রহে রাখার জন্য অনেক কিছুই করে থাকেন। এই পাখি দুটিকে খুবই সহজে পোষ মানিয়ে মানুষের কথাগুলো শেখানো যায়। তবে অন্য পাখিগুলো কিন্তু মানুষের কথাগুলো কখনো শিখে রপ্ত করতে পারে না। এছাড়া বলতেও …

আরও পড়ুনঃ

এই মোরগ বিক্রি হল এক লক্ষ ১০ হাজার টাকায়!

এক মোরগের দাম এক লক্ষ ১০ হাজার টাকা। তাও আবার পোষা মোরগ। অবাক হবেন না, ঠিকই পড়ছেন। একটি মোরগের দাম এক লক্ষ ১০ হাজার টাকা। ভারতের কেরালা রাজ্যের কোট্টায়ামের একটি চার্চে সম্প্রতি নিলামে এই অবিশ্বাস্য দাম ওঠে ওই মোরগটির। কোট্টায়ামে পোনপল্লি সেন্ট জর্জ জ্যাকোবিট সিরিয়ান অর্থোডক্স চার্চে প্রতিবছর একটি মোরগ …

আরও পড়ুনঃ