খালেদা জিয়া

খালেদা জিয়ার জ্বর তবে শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ‘স্থিতিশীল’ বলে জানিয়েছেন তাঁর চিকিৎসকরা। শনিবার (১৭ এপ্রিল) রাতে গুলশানের বাসায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে দেখে আসার পর তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের প্রধান অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী সাংবাদিকদের কাছে এই কথা জানান। তিনি বলেন, ‘উনার অবস্থা সব কিছু মিলিয়ে স্টেবল আছে সব দিক দিয়ে।’

তাহলে কি কোনো উন্নতি আছে বলে মনে করছেন, এই প্রশ্ন করা হলে এফ এম সিদ্দিকী বলেন, ‘আজকে (গতকাল) সারা দিন জ্বর আসেনি, সন্ধ্যার পরে এসেছে। তো ভাইরাস জ্বর আসতেই পারে।

সেই হিসাবে একটা দিকে মনে হচ্ছে যে ইম্প্রুভমেন্ট আছে। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে, এই সময়গুলোকে শুধু একটা প্যারামিটারের ইম্প্রুভমেন্ট দিয়েই কিন্তু সব কিছু মূল্যায়ন করা যাবে না। সব পসিবিলিটির সব ক্ষেত্রই আমাদের নজরদারিতে রাখতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আজকে সারা দিন জ্বর আসেনি, সন্ধ্যার পর কিছুটা জ্বর এসছে, সেটা ১০২। আমরা যে নতুন অ্যান্টিভাইরাল ঔষধটা শুরু করেছি সেটা আজকে তৃতীয় দিন হবে। অলরেডি উনি দুটো ডোজ পেয়েছেন। মনে হচ্ছে যে সেটার রেসপন্স ভালো, পজিটিভ রেসপন্স পাচ্ছি বলে মনে হচ্ছে।’

খালেদা জিয়ার মানসিক অবস্থা কেমন, জানতে চাইলে এফ এম সিদ্দিকী বলেন, ‘মানসিকভাবে উনি খুবই স্ট্রং। উনি একটু আগেও টেলিভিশনে দেখে আমাকে বলছিলেন, যাঁরা সিনিয়র নেতাকর্মী, উনারা মাস্ক পরেন না, মাস্ক গলায় ঝুলিয়ে উনারা কথা বলেন। এটা কেমন কথা?’