মিম মানতাশা

গোপনে ঢাবি শিক্ষককে বিয়ের কারণ জানালেন অভিনেত্রী মিম

গত ১২ মার্চ রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের সঙ্গে বিয়ে হয় লাক্স তারকা ও অভিনয়শিল্পী মিম মানতাশার। অনেকটা গোপনেই বিয়ে করেন এ অভিনেত্রী।

বিয়েতে দুই পরিবারের বাইরে আর কেউ উপস্থিত ছিলেন না। শুধু তাই নয়, বিয়ের খবরের সত্যতা নিশ্চিত হতে ফোন করা হলেও, ওই সময় তিনি এড়িয়ে যান।

এরপর থেকেই লাপাত্তা হয়ে যান মিম। নাট্য নির্মাতা, সহকর্মী ও সংবাদকর্মীরা কেউই তাকে এতদিন খুঁজে পাচ্ছিলেন না। অবশেষে ৩১ মার্চ পাওয়া যায় তাকে।

অভিনয়শিল্পী জাহিদ হাসানের সঙ্গে পুবাইলে একটি ঈদ নাটকের শুটিং করছিলেন মিম। মিম জানিয়েছেন, বিয়ের সময় সবার সঙ্গে কেন যোগাযোগ করতে পারেননি তিনি।

কেন বিয়ের খবর কাউকে জানাতে পারেননি সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনেকেই মনে করেছেন আমি গোপনে বিয়ে করেছি। এটা একদমই ভুল। হুট করেই বিয়ে হয়ে গেল। বিয়েটা ছিল সম্পূর্ণ পারিবারিক সিদ্ধান্তে। দ্রুত সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। সবার সঙ্গে কথা বলার মতো মানসিক অবস্থায় ছিলাম না। বিয়ের খবর জানানোর সুযোগও ছিল না। এরই মধ্যে আবার আমার পরীক্ষা ছিল।

‘সব মিলিয়ে কয়েকটা দিন বিনোদন অঙ্গনের অনেকের কাছ থেকে দূরে ছিলাম। এখন আমাদের আকদ হয়েছে। যখন প্রোগ্রাম করব, তখন সবাইকে বলব। আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আমরা যেন ভালোভাবে সংসার করতে পারি।’

মিম আরও বলেন, ‘আমার আকদ হচ্ছে, খবরটা সবাইকে জানানোর মতো কোনো খবরই মনে হয়নি। ভেবেছিলাম মূল অনুষ্ঠানের সময় ঘটা করে সবাইকে বিয়ের খবর দেব। তা ছাড়া বিয়ের আগে থেকেই আমার পরীক্ষা চলছিল, এটা শুটিং ইউনিটের সবাইকে জানিয়েছিলাম। আমি চাইলেও শুটিং করতে পারতাম না।

বিয়ে ও পরীক্ষার কারণে কিছুটা ভুল–বোঝাবুঝি হয়েছিল। এখন সবার সঙ্গে কথা হয়েছে। সবার ভুলও ভেঙেছে।’ প্রসঙ্গত মিমের স্বামীর নাম ফাইরুজ চৌধুরী। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের শিক্ষক।