ডব্লিউএইচও

করোনার ‘গুরুত্বপূর্ণ তথ্য’ দেয়নি চীন: ডব্লিউএইচও

করোনাভাইরাসের উৎস খুঁজতে উহানে যাওয়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তদন্ত দলকে চীনা কর্তৃপক্ষ ‘গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়নি’ বলে জানিয়েছেন তদন্ত দলের এক সদস্য।

তদন্ত দলের সদস্য অস্ট্রেলিয়ান অণুজীব বিজ্ঞানী ডোমিনিক ডুয়ের বলেছেন, প্রথম দিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হওয়া রোগীদের সম্পর্কিত প্রাথমিক তথ্য চেয়েছিলেন তারা। কিন্তু তাদের শুধু সারসংক্ষেপ দেওয়া হয়েছে। খবর রয়টার্স, বিবিসি, ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল ও নিউইয়র্ক টাইমসের।

এই অভিযোগের বিষয়ে কোনো বক্তব্য দেয়নি চীনা কর্তৃপক্ষ। তবে আগে থেকে তারা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তদন্ত দলের সঙ্গে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করার দাবি করে আসছে।

এই পরিস্থিতিতে চীনের প্রতি তথ্য সরবরাহের আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিবেদন নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগের’ কথা জানিয়েছে তারা।

গত সপ্তাহে চীনে তদন্ত শেষ করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তদন্ত দলের পক্ষ থেকে বলা হয়, উহান শহরের গবেষণাগার থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা ‘নেই বললেই চলে’ বলে তাদের মনে হয়েছে।

২০১৯ সালের শেষ দিকে উহানে প্রথম নতুন করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর পর এই এক বছর দেড় মাসে বিশ্বজুড়ে ১০ কোটি ৮২ লাখের বেশি মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, আর এতে প্রাণ হারিয়েছেন ২৩ লাখ ৮৪ হাজারের বেশি মানুষ।

অধ্যাপক ডোমিনিক ডুয়ের রয়টার্সকে বলেছেন, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে উহানে যে ১৭৪ জনের কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছিল তাদের বিষয়ে প্রাথমিক তথ্য চেয়েছিলেন তারা।

প্রথম দিকে যাদের এই রোগ ধরা পড়েছিল, তাদের অর্ধেকেই উহানের সেই আলোচিত সি ফুড মার্কেটের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ছিল।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলোজি পরিদর্শন করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তদন্ত দলের সদস্যরা, এই গবেষণাগার থেকে ভাইরাস ছড়ানোর যে কথা বলা হয়েছে, তা দৃশ্যত নাকচ করেছেন তারা।

অধ্যাপক ডুয়ের বলেন, সে কারণে আমরা খুব করে ওটা চাচ্ছিলাম। কেন তা দেওয়া হয়নি সে বিষয়ে আমি মন্তব্য করতে পারব না।