খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া

বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা খালেদের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে দুদক।

৪২ কোটি ৭৫ লাখ ৭০ হাজার ৫৪ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং ৮ কোটি ৭৪ লাখ ৩৩ হাজার টাকা বিদেশে পাচারের অভিযোগে করা প্রতিবেদনটি চার্জশিট হিসেবে অনুমোদন দিয়েছে দুদক। দীর্ঘ তদন্ত শেষে কমিশনের তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন দুদকের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।

আজ সোমবার (২৩ নভেম্বর) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে প্রতিবেদনটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুরের পর গুলশান ২ নম্বরের ৫৯ নম্বর সড়কে খালেদের বাসায় অভিযান শুরু করেন র‌্যাব সদস্যরা। পরে সন্ধ্যায় তাঁকে আটক করা হয়। সেখান থেকে ২৪ লাখ টাকা, ৫৮৫ পিস ইয়াবা, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা এবং অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের কথা জানায় র‍্যাব।

পরের দিন ১৯ সেপ্টেম্বর বিকেলে খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে র‍্যাব। অস্ত্র, মাদক ও মুদ্রাপাচার আইনে তাঁর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করা হয় ওই থানায়। আর মতিঝিল থানায় মাদক আইনে করা হয় আরেকটি মামলা। এছাড়া অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গত ২১ অক্টোবর তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।