পেঁয়াজ ও সবজি

দেশি পেয়াঁজ আসার পরও দাম কমেনি, সবজিও আকাশছোঁয়া

রাজধানীর বাজারে আসতে শুরু করেছে দেশীয় নতুন পেঁয়াজ ও সবজি। তবে, এখনো পেঁয়াজের দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরেই রয়ে গেছে। বেশি দামের জন্য পেঁয়াজ কেনা কমিয়ে দিয়েছেন ভোক্তারা।

ওদিকে, শীতের সবজি বাজারে আসলেও কমছে না দাম। ২ মাস ধরে পেঁয়াজের দামে নাভিশ্বাস ওঠা ভোক্তারা এখন ফল কেনার মতোই বেছে বেছে কিনছেন এই নিত্যপণ্য। দামের সঙ্গে সমঝোতা করে কিনছেনও পরিমাণে কম।

রাজধানীর মোহাম্মদপুর পাইকারি পর্যায়ে এক দিনের ব্যবধানে কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা কমে চীনা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১৫-১২০ টাকায়। সেই পেঁয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১৩৫-১৪০ টাকায়।

মিয়ানমারের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৯০-২০০ টাকায় যা পাইকারি বাজারে ছিলো ১৭৫-১৮০ টাকা। বাজারে আসতে শুরু করেছে দেশি জাতের নতুন পেঁয়াজ, বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে। বিক্রেতারা বলছেন, দাম কমলেও বাড়ছে না বিক্রি।

এদিকে, রাজধানীর বাজারে শীতের সবজি আসলেও কমছে না দাম। পাইকারি বাজারে দাম কিছুটা সহনীয় থাকলেও খুচরা বাজারে তা নাগালের বাইরে। বিক্রেতারা বলেন, শালগম ২৪ টাকা, ফুলকপি ৫০ টাকা পিস, পেঁয়াজ পাতা ১০০ টাকা কেজি, মূলা ৫০ টাকা কেজি, ধনিয়া পাতা ১৫০ টাকা। অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির জন্য খুচরা বিক্রেতাদের অতিরিক্ত মুনাফা করার প্রবণতাকে দুষছেন পাইকারি বিক্রেতারা।