ওবায়দুল কাদের

জমিদারদের স্থান আওয়ামী লীগে নেই : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ক্ষমতা অনেককে অহংকারী করে তোলে। এখনো তৃণমূল পর্যন্ত অনেক জমিদারসুলভ জনপ্রতিনিধি আছে, আওয়ামী লীগে এই জমিদারদের জায়গা নেই। তিনি বিএনপির ষড়যন্ত্র রুখতে দলের নেতা-কর্মীদের আরও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘কেউ মশারির ভেতর মশারি টাঙাবেন না।’

কুষ্টিয়া ইসলামিয়া কলেজ প্রাঙ্গণে ২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে আয়োজিত জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ জনগণের দল। দুঃসময়ের নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দিয়ে কোণঠাসা করে সুবিধাবাদী অনুপ্রবেশকারীদের দলে স্থান দেবেন—এমন আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনা চান না। ভালো লোকদেরও জায়গা করে দিতে হবে, খারাপ লোকদের বের করে দিতে হবে। গুটি কয়েক খারাপ লোকের জন্য গোটা দলের বদনাম হতে পারে না।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ মৃত্যুর মিছিলে দাঁড়িয়ে জীবনের জয়গান গায়। ধ্বংসস্তূপের ওপর দাঁড়িয়ে সৃষ্টির পতাকা ওড়ায়। আওয়ামী লীগ বীরের রক্ত ছুঁয়ে মুক্তির সোনালি দিন অভিমুখে বীরদর্পে এগিয়ে যায়। ঝড়, দুর্যোগ, অন্ধকার, অমাবস্যার বিরুদ্ধে লড়াই করতে করতে এগিয়ে যায়। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার অভিমুখে আওয়ামী লীগ।’

বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত না হয়ে নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, ‘বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপিই যথেষ্ট। নির্বাচন আর আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি এখন ইস্যু খুঁজে বেড়াচ্ছে। তারা এখন চক্রান্তের পথ বেছে নিয়েছে। দুই দিন আগে তারা খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের নামে ঢাকায় আদালত চত্বর কলুষিত করেছে। ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ভাঙচুর চালিয়েছে।’

সম্মেলনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য কামাল হোসেন, পারভিন জাহান, বাগেরহাট-২ আসনের সাংসদ শেখ সারহান নাসের, কুষ্টিয়া-১ আসনের সাংসদ আ ক ম সরওয়ার জাহান ও কুষ্টিয়া-৪ আসনের সাংসদ সেলিম আলতাফ বক্তব্য দেন।

সম্মেলনে প্রথম অধিবেশন শেষে বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য আটটি নাম জমা পড়ে। এরপর ২০ মিনিট আলোচনা শেষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের পাঁচ সদস্যের জেলা কমিটি ঘোষণা করেন। বর্তমান সভাপতি সদর উদ্দিন খান ও সাধারণ সম্পাদক আজগর আলীকে বহাল রেখে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের আগামী তিন বছরের জন্য কমিটি ঘোষণা করা হয়।

বার্তা কক্ষ, ২৮ নভেম্বর ২০১৯