ফের ৯ দিনের ছুটির ফাঁদে বাংলাদেশ!

মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল-ফিতর ও ঈদুল আজহা তবে ঈদুল আজহা বা কোরবানীর ঈদ মুসলমানদের জন্য দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব।

ঈদুল ফিতরের মতো এই ঈদেও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ,বিশেষ করে যারা চাকরিজীবি একমাত্র তারা বেশী আশার উৎসুক বাধে এই ছুটির জন্য। কারন প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে রেল,সড়ক ও নৌপথে পাড়ি দেন গ্রামের বাড়িতে।

এ বছরও ঈদুল ফিতর বা রোজার ঈদে সরকারি কর্মজীবীরা লম্বা ছুটি পেয়েছেন। ঈদুল আজহায়ও তাদের জন্য সুখবর। এবার কোরবানির ঈদে সরকারি চাকুরিজীবীরা অন্তত ৯ দিনের ছুটি পাবেন। মাত্র একদিন ছুটি নিতে পারলেই টানা ৯ দিনের ছুটি মিলে যাবে। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী মাসের ১২ আগস্ট (সম্ভাব্য) ঈদ হতে পারে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সেন্টার (আইএসি) এরইমধ্যে ঘোষণা দিয়েছে, আগামী ১১ আগস্ট মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে ঈদুল আজহা উদযাপন হতে পারে। আর যেহেতু সৌদি আরবের একদিন পর বাংলাদেশে ঈদ হয় সেই হিসাবেও চাঁদ দেখা সাপেক্ষে বাংলাদেশে ঈদ হবে ১২ আগস্ট।

যদি ১২ আগস্ট বাংলাদেশে ঈদ হয় তবে সরকারি চাকুরিজীবীরা ১১, ১২ ও ১৩ আগস্ট ছুটি পাবেন। আগের দুদিন ৯ ও ১০ আগস্ট নিয়মিত সাপ্তাহিক ছুটি। ঈদের ছুটির পর ১৪ আগস্ট অফিস খোলা। এর পরের দিন ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের ছুটি। শোক দিবসের ছুটির পর ১৬ ও ১৭ (শুক্র ও শনিবার) দু’দিন আবারও নিয়মিত সাপ্তাহিক ছুটি।

ফলে পাক্কা ৯ দিনের ছুটি কাটাতে সরকারি কর্মজীবীদের শুধু ১৪ আগস্ট একদিন ছুটি নিতে পারলেই হবে। যদিও গেল ঈদুল ফিতরে ছুটির আগে-পরে সাপ্তাহিক ছুটি, লাইলাতুল কদরের ছুটির মধ্যে থাকা কর্মদিবসটিকে ছুটি ঘোষণার আওতায় আনা হয়নি। গত বছর মধ্যপ্রাচ্যে ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছিল ২১ আগস্ট আর বাংলাদেশে ঈদ উদযাপিত হয়েছিল ২২ আগস্ট।