আগামীকাল মুস্তাফিজের বৌভাত, চলছে এলাহি আয়োজন

ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ মিশন শেষ বাংলাদেশের। এদিকে বিশ্বকাপ শেষ করে এবার বিয়ের অনুষ্ঠান নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন মুস্তাফিজ। এর আগে ঘরোয়া পরিবেশে অনেকটা চুপিসারেই বিয়ের কাজটি সম্পন্ন করেছিলেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার কাটার মাস্টার খ্যাত মুস্তাফিজুর রহমান।

আগামীকাল শনিবার (১৩ জুলাই) মুস্তাফিজুর রহমানের বৌভাত অনুষ্ঠান হবে। নববধূর আগমন উপলক্ষ্যে তার বাড়ির সামনে সাজানো হয়েছে সুউচ্চ গেট।

আলো ঝলমল গেট শোভা পাচ্ছে অপরূপ সৌন্দর্যে। শুক্লাপক্ষের একাদশি তিথিতে নববধূকে বরণ করতে প্রস্তুত মুস্তাফিজের পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনরা। বাড়িতে চলছে সাজ-সাজ রব। উৎসবমূখর পরিবেশে চলছে আয়োজন।

মুস্তাফিজের বড় ভাই মাহফুজুর রহমান মিঠু জানান, মুস্তাফিজের বৌভাত অনুষ্ঠানে প্রায় আড়াই হাজার অতিথি থাকবেন। দাওয়াতের কাজ শেষ হয়েছে। চলছে সাজ-সজ্জার কাজ। বাড়ি লাগোয়া মেইন রাস্তায় করা হয়েছে আলো ঝলমল দৃষ্টিনন্দন গেট।

সেখান থেকে বাড়ির দরজা পর্যন্ত প্রায় ১০০ মিটার পথের দু’ধারেও সাজানো হয়েছে বিদ্যুতের আলোয়। গোটাবাড়ি সাজানো হয়েছে অনন্যরূপে। বর-কনের আসনও সাজানো হচ্ছে ফুল ও রঙিন আলোর সংমিশ্রণে।

তাছাড়া মুস্তাফিজের পরিবার আগেই জানিয়েছিলেন, বিশ্বকাপ শেষে অনুষ্ঠিত হবে বৌভাত। নববধূ শিমুকে সেদিন জাঁকজমক আয়োজনে তুলে নেওয়া হবে। মুস্তাফিজের বাড়ি সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার তারালি ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামে। এ বাড়িতেই বধূ হয়ে আসবেন শিমু।

আগামীকাল ১৩ জুলাই শনিবার নিজ বাড়িতেই মুস্তাফিজের বৌভাত। এরই মধ্যে বাড়িতে সাজসাজ রব পড়ে গেছে। আত্মীয়-স্বজন, শুভাকাঙ্খীদের মধ্যে নতুন প্রাণসঞ্চার হয়েছে। তাদের মুখে মুখে এক কথা মুস্তাফিজের বৌভাত।

মুস্তাফিজের বড় ভাই মাহফুজুর রহমান মিঠু আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় দলের সব খেলোয়াড় নিমন্ত্রিত হয়েছেন। সব আত্মীয়-স্বজন শরিক হবেন বৌভাতে। গ্রামীণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে বৌভাত।’

এদিকে নববধূ সুমাইয়া পারভিন শিমু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মনোবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্রী। তার বাবা মো. রওনাকুল ইসলাম পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে থাকেন গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামে।