লাল কার্ডের পর মেসির বোমা, ‘ফাইনালে ব্রাজিলকে জেতানোর চেষ্টা’

এবারের কোপা আমেরিকা আসরের পুরোটাই রেফারিং ছিল খুবই বাজে। দুর্ভাগ্যজনক হলেও, আমি এখনই দেখতে পাচ্ছি এবারের শিরোপা জিতবে ব্রাজিল। ফাইনাল ম্যাচে রেফারি কিংবা ভিএআরের কিছুই করার থাকবে না। কথাগুলো বলছিলেন আর্জেন্টিনাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

শনিবার (৬ জুলাই) বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় চিলির বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচের প্রথমার্ধে অত্যন্ত বাজে রেফারিং শিকার হয়ে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয়েছে আর্জেন্টাইন এই ফুটবল তারকাকে। এমনকি ম্যাচ শেষে পদক বয়কট করেন লিওনেল মেসি। আর সেইসঙ্গে কোপা আমেরিকা নিয়ে সমালোচনার ঝড় তোলেন তিনি।

স্বাগতিক ব্রাজিলকে জেতানোর জন্য এবারের কোপা আমেরিকা আসর দুর্নীতিগ্রস্ত হয়েছে উল্লেখ করে বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার বলেন, ‘খেলায় আর্জেন্টিনাকে সমান চোখে দেখা হয়নি। এছাড়া আমি দুর্নীতির অংশ হতে চাই না।’ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

এর আগে আজকের ম্যাচের প্রথমার্ধের ৩৭তম মিনিটে লাল কার্ড দেখলেন লিওনেল মেসি। চিলির গ্যারি মেডেলও একইসঙ্গে পেলেন লাল কার্ড। রেফারির সিদ্ধান্ত কতটা যুক্তিযুক্ত ছিল, তা নিয়ে অবশ্য হতে পারে বিতর্ক।

ধাক্কাধাক্কিতে দুজন জড়িয়েছিলেন ঠিকই, তবে মেডেলের মতো আগ্রাসী, মারমুখী ভূমিকায় ছিলেন না আর্জেন্টাইন তারকা। মেডেলই বা লাল কার্ড পাওয়ার কতখানি যোগ্য ছিলেন, তা নিয়েও থাকল প্রশ্ন। নেওয়া হয়নি ভিএআর প্রযুক্তির সাহায্যও।

এমনকি আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনিও প্রশ্ন রেখেছেন, কেন মেসিকে লাল কার্ড দেখনো হলো? তার অপরাধ কী ছিল?

অবশ্য মেসি বলছেন, রেফারি চাইলে দুজনকেই হলুদ কার্ড দেখাতে পারতেন। কিন্তু লাল কার্ড দেখানো অবিশ্বাস্যই ছিল তার কাছে।

এদিকে আজকের ম্যাচের রেফারি মারিও ডিয়াজ দে ভিভারের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

মেসি আরও বলেন, ‘কোপা আমেরিকায় আমাদের যথাযথ সম্মান দেখানো হয়নি। আমরা আরো ভালো ফল করতে পারতাম। কিন্তু তারা আমাদের ফাইনালে যাওয়ার জন্য বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সমর্থকদের ফুটবল উপভোগের অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে এবারের আসরের দুর্নীতি ও রেফারি। এটা ফুটবলকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।’

মেসি মনে করছেন, ওই সমালোচনার জন্য আজকের ম্যাচে তার বিপক্ষে অবস্থান নেয় রেফারি এবং তাকে দেখানো হয় লাল কার্ড।

আর্জেন্টিনা অধিনায়ক আরও বলেন, ‘ফাইনালে ব্রাজিলকে জেতানোর চেষ্টা চালানো হবে।’

এসব বোমা ফাটানো কথার জন্য মেসিকে নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হতে হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মেসি বলেন, ‘সত্য সব সময় উন্মোচন করা উচিত।’

এর আগে ব্রাজিলের বিপক্ষে সেমিফাইনালে হারার পর পেনাল্টি না পাওয়ার আক্ষেপ করেছিলেন মেসি।

গতকাল দিবাগত রাতে চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলের জয়েই তৃতীয় স্থান পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনার হয়ে গোল করেন সার্জিও আগুয়েরো ও পাওলো দিবালা। এছাড়া চিলির পক্ষে পেনাল্টি থেকে একটি গোল করেন আর্তুর ভিদাল।