বিএনপির কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদলের অবস্থান, হঠাৎ আগুন

তফসিল বাতিল ও বয়সসীমা তুলে দিয়ে ধারাবাহিক কমিটির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ ও বহিষ্কৃত নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) দুপুর ১টা ২০ মিনিটের দিকে একটি মিছিল নিয়ে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন ছাত্রদলের সহস্রাধিক নেতাকর্মী।

এসময় সেখানে হাঠাৎ করে মোটর সাইকেলের হেলমেট, ব্যানার ও ফেসটুকে আগুন লেগে যায়। পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে এনে আবারও কর্মসূচি শুরু করে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বৈদ্যুতিক খুঁটির নিচে জমানো ময়লায় প্রথমে এ আগুন ধরিয়ে দেন তারা। এসময় আশে-পাশে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে।

এসময় পাশে এক ব্যক্তিকে ডিম ছুঁড়ে মারতে দেখা গেছে। তবে তাৎক্ষনিকভাবে তার নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। এর আগে দুপুর দেড়টা দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সামনে তারা অবস্থান নেন। এসময় তারা অবৈধ তফসিল মানি না মানবো না এবং বয়সসীমা উঠিয়ে দেওয়ায় দাবিসহ বিভিন্ন স্লোগানে রাজপথ মুখরিত করে তুলেন।

তবে ছাত্রদলের তফসিল ঘোষণা ও সংগঠনটির বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। তবে মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হবে-এবিষয়টি পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনের নেতৃবৃন্দরা।

এদিকে মনোনয়নপত্র বিতরণ প্রতিহত করতেই ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়েরর সামনে অবস্থান নিয়েছেন বলে জানা গেছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২৭ ও ২৮ জুন ছাত্রদলের প্রার্থীদের মাঝে মনোনয়নপত্র বিতরণ করার দিন।

অপরদিকে গতকাল বুধবার বিএনপির সিনিয়র নেতাদের আশ্বাসে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা একদিনের জন্য কর্মসূচি স্থগিত করেছিলেন। কিন্তু তাদের দাবি পূরণ না হওয়ায় তারা আবারো কর্মসূচি পালন করছে বলে জানা গেছে।

গত রোববার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলের মাধ্যমে ছাত্রদলের কমিটি গঠনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। আগামী ১৫ জুলাই এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল তিনটা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

তবে ছাত্রদলের একাংশ এই তফসিলকে সাদরে গ্রহণ করলেও বিলুপ্ত কমিটির বিক্ষুব্ধ নেতারা দলের ঘোষিত তফসিলকে মানতে নারাজ। তারা বলেন, তাদের ন্যায্য দাবি না মানা পর্যন্ত ধারাবাহিক শান্তিপূর্ণ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। এই ধারাবাহিকতায় আজ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তারা অবস্থান নিয়েছেন জানান বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

অপর দিকে গত শনিবার রাতে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ ১২জন নেতাকে বহিষ্কারের পর পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পদ প্রত্যাশী ছাত্রদল নেতাদেরকেও তাদের অনুসারী নিয়ে গতকাল কার্যালয়ে অবস্থান নেন। তাদেরকে কার্যালয়ে থাকার জন্য দলের হাইকমান্ড থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে উপস্থিত নেতাকর্মীরা জানান। আজও তারা হাইকমান্ডের নির্দেশে এসেছেন বলে জানা গেছে।

আজ সকাল থেকেই দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীসহ ছাত্রদলের পদ প্রত্যাশীরা নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় ভিতরে আছেন।