তিন চাঁদাবাজকে বেধড়ক পিটুনি সেনাবাহিনীর

মহাসড়কে বিভিন্ন পরিবহন থেকে জোরপূর্বক চাঁদা নেয়ার সময় ফরিদ উদ্দিন, শরিফুল ও কবির হোসেন নামে তিন চাঁদাবাজকে ধরে বেধড়ক পিটুনি দিয়েছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের টিঅ্যান্ডটি অফিসের সামনে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। পরে চাঁদাবাজরা আর চাঁদাবাজি করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে হাত-পা ধরে মাফ চেয়ে এ যাত্রায় রক্ষা পায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ড থেকে দুইশ গজ দূরে টিঅ্যান্ডটি অফিসের সামনে ৪-৫ জনের একটি দল মহাসড়কে বাস-ট্রাকসহ বিভিন্ন পরিবহন থামিয়ে চাঁদা তুলছিল। এতে মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়।

এসময় সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি এসে ওই যানজটে পড়ে। পরে সেনা সদস্যরা গাড়ি থেকে নেমে এগিয়ে গিয়ে ৪-৫ যুবককে লাঠি হাতে বিভিন্ন পরিবহন থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করতে দেখে। পরে ধাওয়া করে তাদের তিনজনকে ধরে বেধড়ক পিটুনি দেয় তারা। এক পর্যায়ে হাতে-পায়ে ধরে আর চাঁদাবাজি করবে না বলে মাফ চেয়ে এ যাত্রায় রক্ষা পায় চাঁদাবাজরা।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী জানান, মহাসড়কে চাঁদা তোলা নিয়ে কোনো মারপিটের ঘটনা তার জানা নেই।