জঙ্গিদের মদদ দিচ্ছেন মালয়েশিয়া থেকে জাকির নায়েক?

ধর্ম-প্রচারক জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে পেশ করা প্রথম ডাইরেক্ট চার্জশিটে ১৯৩.০৬ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ এনেছে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালতে পলাতক জাকির নায়েক ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় প্রসিকিউশন অভিযোগ দায়ের করেছে ইডি।

এর আগে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের আবেদনে সাড়া দিয়ে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের মামলায় জামিন অযোগ্য পরোয়ানা জারি করে মুম্বাইয়ের আদালত। এরপরই জাকিরকে দেশে ফেরত আনতে তৎপরতা শুরু হয়।

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট চারবার তাকে সমন পাঠানো সত্ত্বেও তিনি ভারতে এসে জেরার মুখোমুখি হননি বা সমনের জবাব দেননি বলে অভিযোগ উঠেছে। গোয়েন্দাদের ধারণা, জাকির নায়েক মালেশিয়ায় আত্মগোপন করে রয়েছেন এবং সেখান থেকেই জঙ্গি সংগঠনগুলিকে মদদ জোগাচ্ছেন।

এর আগে জাকির নায়েক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইডির মুখোমুখি হবে বলে দাবি করেছিলেন। যেহেতু তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে, সেহেতু এনআইএ ও ইডি জাকিরের আবেদন খারিজ করে তাকে সরাসরি জেরায় হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়।

উল্লেখ্য, ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি বা এনআইএ’র দায়ের করা এফআইআরের ভিত্তিতে জাকিরকে একবার গ্রেপ্তারও করেছিল ইডি। অভিযুক্তের ৫০.৪৬ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছেন তদন্তকারীরা।