ফণীর দাপটে লন্ডভন্ড বিমানবন্দর

ভারতের ওরিষা অঞ্চলে শুক্রবার সকালে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী আঘাত হানে। ফণীর আঘাতে নিহত হয়েছে ৯ জন। ওইদিন ফণীর তাণ্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে ভুবনেশ্বরের বিজু পট্টনায়ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ওড়িশা সরকার জানিয়েছে, ঝড়ের দাপটে বিপুল ক্ষতি হয়েছে বিমানবন্দরের যন্ত্রপাতির। ভুবনেশ্বর থেকে ৩৯টি উড়ান বাতিল করাও হয়েছে।

আজ শনিবার (৪ মে) দুপুরের পর বিমান চলাচল স্বাভাবিক হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। বিমানবন্দরে ঢোকার রাস্তায় হোর্ডিং-সহ একাধিক কাঠামো ভেঙে পড়েছে। পরে তা পে লোডার দিয়ে সরিয়ে ফেলা হয়। সকাল ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা নাগাদ ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরে ফণীর দাপট ছিল সবচেয়ে বেশি।

বিমানবন্দরের নামের হোর্ডিংয়ের অংশও ভেঙে গিয়েছে অনেক জায়গায়। ঝড়ের দাপটে বিমানবন্দরের কয়েকটি ঘরের ছাদ ও ভিতরেও একাধিক জায়গা ভেঙে গিয়েছে। বিমানবন্দরে যাত্রী টার্মিনালের গেটের সামনে জায়গায় জায়গায় গাছ পড়ে রাস্তা আটকে যায়। বিমানবন্দর চত্বরে একাধিক গাছ উপড়ে পড়ে ফণীর দাপটে। বন্ধ হয়ে যায় বিমানবন্দরের ভিতরে চলার রাস্তা।

ভুবনেশ্বর বিমানবন্দর দেশের মধ্যে ১৩তম ব্যস্ত বিমানবন্দরের স্থান পেয়েছে। সেই বিমানবন্দরই ফণীর দাপটে বিধ্বস্ত হয়ে পড়ে। দুপুর ১২টার মধ্যেই উপকূল ভাগে পুরোপুরি পৌঁছে যায় ফণী। অর্থাৎ উপকূলে পৌঁছে যায় ‘আই অফ দ্য স্টর্ম’ বা ঝড়ের কেন্দ্রবিন্দু। তার পর থেকেই প্রবল গতিতে বিমানবন্দর ও সংলগ্ন এলাকায় শুরু হয়ে যায় দাপট। প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল বিল্ডিং মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, ছাদ ও দেওয়ালের অংশ ভেঙে পড়েছে বলে একটি টুইট বিবৃতিতে জানিয়েছে ওড়িশা সরকার।