মনোনয়নের জন্য দৌড়ঝাঁপ করছেন যে সকল তারকারা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলো মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে চলচ্চিত্র, সংগীত, নাট্যাঙ্গনসহ সংস্কৃতি জগতের তারকাদের দিকে বিশেষ নজর দিচ্ছে বলে জানা গেছে।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ এবং মাঠের বিরোধী দল বিএনপি মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে তারকাদের দিকে বিশেষ মনোযোগী হচ্ছে।

যদিও বিএনপি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে কি না, সে ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, চলচ্চিত্রের খ্যাতিমান নির্মাতা, নায়ক-নায়িকা ও নাট্যাভিনেতারাও রয়েছেন এই দলে।

আওয়ামী লীগের হয়ে যারা মনোনয়ন পেতে পারেন তাদের কেউ কেউ দলের সবুজ সংকেত পেয়ে ইতোমধ্যে নির্বাচনী তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ থেকে অনেকেই প্রার্থী হতে আগ্রহী হলেও বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন।

তা ছাড়া বিএনপি সমর্থক রুপালি জগতের তারকারাও মাঠে বেশ সক্রিয়। দল নির্বাচনে অংশ নেবে কি না, তা এখনো সিদ্ধান্ত না হলেও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে তারা সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন এবং অনেকে দলের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন। নির্বাচনের মাঠে রুপালি জগতের এসব তারকার উপস্থিতি বেশ কৌতূহল জাগিয়েছে সব মহলে।

২০১৪ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলো অনেক তারকাকে মনোনয়ন দিয়েছিল। দলগুলো তার ফলও পেয়েছিল। নির্বাচনে বাংলা সিনেমার সুপারস্টার দেব, সুচিত্রা সেনের মেয়ে অভিনেত্রী মুনমুন সেন, অভিনেত্রী সন্ধ্যা রায়, অভিনেত্রী শতাব্দী রায়, নাট্যকর্মী অর্পিতা ঘোষসহ মনোনয়ন পাওয়া প্রায় সব প্রার্থীই নির্বাচনে জয়লাভ করেন। তা ছাড়া ভারতের লোকসভার নির্বাচনে তাপস পাল মনোনয়ন পেয়ে জয়লাভ করেন।

বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোও ভারতের এ কৌশল গ্রহণ করার দিকে এগুচ্ছে বলে মনে হচ্ছে। আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী তারকা প্রার্থীরা ইতোমধ্যে মাঠে কাজ শুরু করে দিয়েছেন।

এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীরা ইতোমধ্যে প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। আর বিএনপি যেহেতু এখনো নির্বাচনে যাওয়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি, তাই বিএনপি সমর্থিত তারকারাও বিভিন্ন কৌশলে নিজেদের জানান দিচ্ছেন।

তারকাদের মধ্যে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ নোয়াখালী-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাচ্ছেন। চিত্রনায়ক ফারুক গাজীপুর-৫ (কালীগঞ্জ-গাজীপুর মহানগর-সদর আংশিক) আসনে নৌকার প্রার্থী হতে তৎপরতা চালাচ্ছেন।

অভিনেত্রী অঞ্জনা সুলতানা চাঁদপুর-৩ (চাঁদপুর সদর-হাইমচর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের পক্ষে মনোনয়ন চাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

খ্যাতিমান চলচ্চিত্র অভিনেতা ও পরিচালক এ টি এম শামসুজ্জামান ঢাকা-৬ (সূত্রাপুর- কোতোয়ালি) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী।

নায়িকা ফারজানা আমিন নতুন ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) আসনের মনোনয়ন চান। নায়িকা অরুণা বিশ্বাস চাইছেন মানিকগঞ্জ-১ (দৌলতপুর-ঘিওর-শিবালয়) আসনের দলীয় মনোনয়ন।

চলচ্চিত্র অঙ্গনের সোনালি যুগের নায়িকা শাবানাও নির্বাচনী প্রচারে নেমেছেন। তবে নিজের জন্য নয়, স্বামী চলচ্চিত্র প্রযোজক ওয়াহিদ সাদিকের জন্য নির্বাচনী তৎপরতা চালাচ্ছেন তিনি। যশোর-৬ (কেশবপুর) আসন থেকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে চান ওয়াহিদ সাদিক।

বিশিষ্ট নাট্যাভিনেত্রী শমী কায়সার আগামী নির্বাচনে নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী আংশিক) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান।

নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন খ্যাতনামা অভিনেত্রী, আবৃত্তিকার ও নির্মাতা রোকেয়া প্রাচী। ফেনী-৩ (সোনাগাজী-দাগনভূঞা) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী তিনি।

প্রখ্যাত অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী ২০০৮ সালের নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ (সদর) আসনে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের মনোনয়নে। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক কবরী আগামী নির্বাচনে ঢাকা-১৭ (গুলশান-ক্যান্টনমেন্ট-ভাষানটেক) আসনের মনোনয়ন চাইছেন।

এ ছাড়া সংগীতশিল্পী মমতাজ বেগম মানিকগঞ্জ-২ (সিঙ্গাইর-হরিরামপুর-সদর আংশিক) আসনের বর্তমান এমপি। এর আগে সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি ছিলেন তিনি।

ঢাকাইয়া সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হওয়া ও দলীয় বেশকিছু কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করছেন। এরপর থেকে তার নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার খবর চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রচারিত হয়।

এ বিষয়ে চিত্রনায়ক ফেরদৌস বলেন, ‘নির্বাচনের প্রার্থী হওয়া নিয়ে এখনো কিছুই বলতে পারছি না। তবে নেত্রী যদি মনোনয়ন দেন তবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।’

এ ছাড়া বিএনপিতেও রয়েছেন একঝাঁক তারকা। বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলে তারা মনোনয়ন চাইবেন। অনেকে মনোনয় পাবেন বলেও জানা গেছে। তাদের মধ্যে- জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী মনির খান। তার নিজের নির্বাচনী এলাকা ঝিনাইদহ-৩ আসন। তিনি অনেক আগ থেকেই নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর বিএনপির রাজনীতিতে বেশ সক্রিয়। তিনি কুমিল্লা সদর আসন থেকে নির্বাচন করার চিন্তাভাবনা করছেন।

দেশের জনপ্রিয় গীতিকার, সুরকার ও চলচ্চিত্রকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার। এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে চান তিনি।

সংগীতশিল্পী বেবী নাজনীন। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তিনি। বর্তমানে দলটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সহ-সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নীলফামারীর-৪ আসনের (সৈয়দপুর এবং কিশোরগঞ্জ) থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান।

এ ছাড়াও তারকাদের মধ্যে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কণ্ঠশিল্পী রুবেল, কনকচাঁপা ও রিজিয়া পারভীন মনোনয়ন চাইবেন বলেও জানা গেছে। সুত্র: পরিবর্তন

শেয়ার করুন: