এত তাড়াহুড়া করে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে দেশ ছাড়ছেন মিশা সওদাগর! কিন্তু কেন?

২ জুন প্রায় একমাসের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য ঢাকা ছাড়বেন মিশা সওদাগর। দুই বছর আগেই যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ড পেয়েছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ব্যস্ততম খল চরিত্রের অভিনেতা মিশা সওদাগর। তবে ঢাকাই চলচ্চিত্রের ব্যস্ততায় বেশির ভাগ সময় কাটে বাংলাদেশে। তার মতে, দেশকে ভালোবেসে দেশের চলচ্চিত্র ভালোবেসে দেশেই বেশি সময় কাটানো।

মিশা সওদাগরের বড় ছেলে ওয়ালিদ হাসান পড়ছেন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে। ছোট ছেলে ওয়াশকুরনী হাসান ঢাকার স্কলাস্টিকায়। স্ত্রী জোবায়দা রব্বানী মিতা শিক্ষকতা করেন।

ছোট ছেলের ছুটি, স্ত্রীর ছুটিও মিলেছে। অতএব এক মাসের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন তিনি। একান্ত পারিবারিক সময় কাটানো আর গ্রিন কার্ডের বাধ্যবাধকতা পরিপূরণ দুই’ই হবে।

বর্তমানে যেসব কাজ করছেন সেগুলোর কী হবে প্রশ্নে মিশা সওদাগর বলেন, আমি শিল্পী সমিতির সভাপতি। দায়িত্বও অনেক। আমার জন্য কেউ বিন্দুমাত্র ক্ষতিগ্রস্ত হোক তা চাইবনা। তাই হাতের যে কাজ আছে তা সেরেছি। আর অন্যান্য যেসব নতুন সিনেমা আছে সেগুলোর কাজ ফিরে এসে করব।’

সাম্প্রতিক সময়ে শেষ করা কাজগুলোর মধ্যে ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘মনে রেখো’, মাহমুদ হাসান শিকদারের ‘অবতার’, ‘বদিউল আলম খোকনের ‘আন্ডারওয়ার্ল্ড’, শাহীন সুমনের ‘মাতাল’। ২৬ মে থেকে শুরু হবে ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘ক্যাপ্টেন খান’ সিনেমার শুটিং।

তার জন্য কক্সবাজারে যাবেন বলে জানান মিশা সওদাগর। এ ছবির নায়ক শাকিব খান।

শেয়ার করুন: